পিনাক বাবু, বাংলাদেশের ঘাড় থেকে নামুন

সফিউর রহমান

ভারতের সাবেক কূটনীতিক পিনাক রঞ্জন চক্রবর্তী মনে করেন, ভারতের পক্ষে খুব বেশি কিছু করা সম্ভব নয়। মি. চক্রবর্তী একসময় বাংলাদেশে ভারতীয় হাইকমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। বিবিসি বাংলার সাথে এক সাক্ষাৎকারে মি: চক্রবর্তী বলেন, " রোহিঙ্গা তো আমাদের প্রবলেম নয়। এটা তো বিটউইন মায়ানমার ও বাংলাদেশ ।"

ভারতের সাবেক এ কূটনীতিক বাংলাদেশকে পরামর্শ দিচ্ছেন চীনের সহায়তা নেবার জন্য। ভারতীয় কূটনীতিকদের এই আগ বাড়িয়ে কথা বলার অভ্যেসটা গেল না। মি. পিনাক চক্রবর্তীর জানা দরকার রোহিঙ্গা ইস্যুতে ভারত কিছু করবে বা ভারতের কিছু করার সামর্থ্য আছে এইটা বাংলাদেশ কেন, দুনিয়ার কোন রাষ্ট্রই মনে করে না।

সমস্যা হইলো পিনাক বাবু, সুসষমা স্বরাজ সহ সাউথ ব্লকের পরগাছা কূটনীতিকরা সব সময় ভুলে যায়, ভারতের সেভেন সিসটার্স ভারতের অভ্যন্তরীণ সমস্যা। অভ্যন্তরীণ সমস্যা মিটানোর জন্য বাংলাদেশের ঘাড়ে চেপে বসার চিন্তা কেবল ভারতের মত বেকুব রাষ্ট্রই করতে পারবে।অন্য হিসাব আর নাই বা তুলি। বাংলাদেশের সমস্যা বাংলাদেশই সমাধান করবে।

এ নিয়ে পিনাক বাবুদের চিন্তা না করলেও চলবে। পিনাক বাবুরা যত দ্রুত বাংলাদেশের ঘাড় থেকে নেমে যাবেন ততই মঙ্গল। কিন্তু সেই মঙ্গলের কাজটিই করছে না তারা। বরং বাংলাদেশের জন্য যা কিছু অমঙ্গল তাই নিয়ে ব্যস্ত তারা। ধারের দরকার নেই, তবু জোর করে ধার দিচ্ছেন। যাতে ওদের বস্তাপচা মালগুলো ওই ধারের টাকাতেই কিনতে বাধ্য হয় বাংলাদেশ।

ক্ষমতায় থাকার জন্য আওয়ামী লীগকে এসব অত্যাচার সইতে হচ্ছে বৈকি। কিন্তু বাংলাদেশের জনগণ এসব ভালো চোখে দেখছে না। তারা পিনাক বাবুদের সব কিছু বেশ ভালো করেই দেখেশুনে রাখছে। সকল ক্রিয়ার সমান প্রতিক্রিয়া আছে। সেইটা যে পিনাক বাবুদের জন্য জন্য সুখকর হবে না তা নিশ্চিত করেই বলা যায়। 

সম্পাদক: আবু মুস্তাফিজ

৩/১৯, ব্লক-বি, হুমায়ুন রোড, মোহাম্মদপুর, ঢাকা