মোহমেঘ

Author : শারমিন আঞ্জুম

List Price: Tk. 300

Tk. 225 You Save 75 (25%)

মানব মনের সহজাত প্রবৃত্তি ভালোবাসা। ভালোবাসায় আবেগ যতটুকু, ঠিক ততটুকুই বিশ্বাস। কিন্তু কখনো কখনো এই ভালোবাসার তীব্রতা এতটাই বেশী হয়ে ওঠে ,যে বিশ্বাস আর ভরসার পথ ফেলে তা হাঁটতে শুরু করে উল্টোপথে। আর সে পথে চলতে চলতে মানুষ হয়ে যায় স্বার্থপর। স্বার্থপরতার কালো চাদরে ঢেকে যায় তার চিন্তা-চেতনা। মানুষ হারিয়ে ফেলে ন্যায় অন্যায় বোধ, হারিয়ে ফেলে মানবিকতা। আর মানবিকতা বর্জিত সেই মানুষটির আচরণ তখন ভালোবাসার মানুষের প্রতিও হয়ে উঠতে পারে নৃশংস। 

এ উপন্যাসের ঘটনা যে চরিত্রকে ঘিরে তার নাম তরু। চিকিৎসক স্বামী ফেরদৌসের ভালোবাসায় ডুবে থাকা বনেদী পরিবারের বউ। শাশুড়ির বারণ-শাসন আর গভীর ভালোবাসায় আগলে রাখা স্বামীকে পথের কোন এক বাঁকে ফেলে এসে নিজ অস্তিত্বের খোঁজে প্রতিনিয়ত যার লড়াই। নিঃসন্তান হবার কষ্টের সাথে প্রতিনিয়ত যুঝতে থাকার চেয়ে কোন অংশে কম নয় তার স্বাবলম্বী হয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর সংগ্রামের কষ্ট আর ক্লান্তি। সহানুভূতি অথবা সহমর্মিতার হাত বাড়িয়ে দেয়া খুব চেনা মানুষগুলোর অচেনা কদর্য রূপ তরুর আস্থা আর বিশ্বাসের জায়গাগুলি টলিয়ে দেয় কখনো কখনো। তবু আত্মবিশ্বাস না হারিয়ে আরো দৃঢ়তার সাথে সে পা ফেলে চলে তার বেছে নেয়া পথে। 

বিচ্ছেদ আর বিচ্ছেদ পরবর্তী জীবনে নিজেকে সাবলম্বী করে তোলার সে যাত্রায় তার সহযাত্রী হিসেবে আসে এক হৃদয়বান বন্ধু, তরুর জীবনে নতুন আলো আর আনন্দের উৎস। দু জনের একাকী যাত্রাপথ এক পথে এসে মিশে যায়, শুরু হয় যৌথযাত্রা। আর তখনই তরুর সামনে এসে দাঁড়ায় তারই অতীতের কিছু অনাবিস্কৃত সত্য। যে সত্য তার বিশ্বাস আর ভালোবাসার পুরো আকাশটাকেই এলোমেলো করে দেয়।তরু জানতে পারে যাকে আকাশ ভেবে  তার ছায়াতলে আশ্রয় খুঁজেছিল ,সে শুধুই ছিল তার চোখের মোহমেঘ।

Title মোহমেঘ
Author শারমিন আঞ্জুম
Publisher উপকথা প্রকাশন
Country Bangladesh
Language বাংলা
sharmin.png

শারমিন আঞ্জুম

জন্ম : ১৫ই সেপ্টেম্বর রাজধানীতে। সেখানেই বেড়ে ওঠা ও পড়াশোনা। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে গার্হস্থ্য অর্থনীতি অনুষদে স্নাতকোত্তর। বাবা এ কে এম সামসুল হক, মা তৌহিদা হকের দ্বিতীয় সন্তান। প্রকৌশলী স্বামী মাহবুবুল আলম ও দুই পুত্র সন্তান আবিয়াজ ও আরিজ আলম নিয়ে ছোট পৃথিবী।

ছবি আঁকা আর ঘুরে বেড়ানো লেখকের নেশা। ছবি আঁকায় ছোটবেলা থেকেই সিদ্ধহস্ত। যাবতীয় স্বপ্ন এই চিত্রশিল্প নিয়েই ছিল। লেখালেখিটা করতেন একান্ত নিজের জন্য। চারপাশে ঘটে যাওয়া চেনা গল্পগুলো কল্পনার পৃথিবীতে এনে নিজের মতো বদলে দেওয়ার চেষ্টাতেই তুলি রেখে কখনো কখনো কলম ধরা। সেই খেয়ালি গল্পগুলো শখের বশে আলোতে আসে বহু পরে। পাঠকের অপার ভালোবাসা আর উৎসাহে সেগুলো প্রকাশিত বইয়ে রূপ নেয়। প্রথম উপন্যাস থ্রিলার নির্বাসন ২০১৯ সালে প্রকাশিত ও যথেষ্ট পাঠকপ্রিয়। দ্বিতীয় উপন্যাস কিছু না বলা কথা সামাজিক জনরার, সেটিও যথেষ্ট পাঠক নন্দিত বই, ঐতিহ্য থেকে প্রকাশিত তৃতীয় বইটি হরর থ্রিলার জনরার আমারে দেবনা ভুলিতে সমালোচক প্রশংসিত। ফেব্রুয়ারি ২০২১ সালে তার লেখা প্রথম উপন্যাস প্রিয় চন্দ্রিমা চতুর্থ বই হিসেবে প্রকাশিত। এবং তার কিছুদিন পর মনস্তাত্ত্বিক উপন্যাস তুমি কেমন আছ?

লেখকের মতে লেখার ব্যাপারটা পুরোপুরি উপভোগের বিষয়। তাই নির্দিষ্ট গণ্ডিতে নিজেকে বেঁধে না রেখে লেখতে চান নানান বৈচিত্র্যময় বিষয় নিয়ে। লেখা নিয়ে কোনো লক্ষ্য তিনি ঠিক করেননি। কারণ তার জন্য গন্তব্যের থেকে এই পথ চলাতেই আনন্দ।


Submit Your review and Ratings

Please Login before submitting a review..