কাজল চোখের মেয়ে

Author : সাদাত হোসাইন

List Price: Tk. 200

Tk. 150 You Save 50 (25%)

কবিতা কী গল্প নয়? আমার কাছে সকলই গল্প । কিন্তু গল্প বলার ধরণগুলো কেবল আলাদা। আলাদা বলেই আমি ছ’পৃষ্ঠার একটা গল্পে যা বলি, কখনো কখনো তা হয়তো এমন দুই লাইনেই বলে ফেলতে পেরেছি বলে মনে হয়‘কোথায় যাবে তোমার মানুষ রেখে? মানুষ কেন হারিয়ে গেলে, মানুষ পাওয়া শেখে?

কিংবা “শোনো, কাজল চোখের মেয়ে, আমার দিবস কাটে, বিবশ হয়ে তোমার চোখে চেয়ে কিংবা, ততটুকু দিও, যার পরে আর কিছু চাইবার, বাকী না থাকে! ততটুকু নিও, যার পরে আর, পিছু চাইবার, ফাকি না থাকে! যেতে হলে, এখুনি যাও, পরে গেলে মায়া বেড়ে যাবে, থেকে গেলে, এখুনি থাকো, বেলাশেষে ছায়া বেড়ে যাবে। আমি যা লুকিয়ে রাখি, গভীর, গোপন, তার সবটুকুই তোমার আপন। মেঘের মতো ভার হয়ে রয় বুক, মেঘের মতো থমথমে কী ব্যথা! মেঘ তো তবু বৃষ্টি হয়ে ঝরে, আমার কেবল জমছে আকুলতা। ততটুকু হোক দেনা, যতটুকু হলে, ফিরে আসবার পথটুকু থাকে চেনা। কাজল চোখের মেয়ে বুকের ভেতর পাখির ভেজা পালকের স্পর্শে তিতির বয়ে যাওয়া অজস্র অনুভূতির নদী ছুঁয়ে দেয়ার গল্প, চাইলে তাকে আপনি কবিতা বলতে পারেন, নাও পারেন। কিন্তু স্পর্শ বলবেন, স্পর্শিত হবেন, তা নিশ্চিত।

 

 

Title কাজল চোখের মেয়ে
Author সাদাত হোসাইন
Publisher অন্যধারা
ISBN 9789849366058
Number of Pages 62
Country Bangladesh
Language বাংলা
untitled-2_1.png

সাদাত হোসাইন

সাদাত হোসাইন

স্নাতকোত্তর, নৃবিজ্ঞান, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়।

সাদাত হোসাইন নিজেকে বলেন গল্পের মানুষ। বুকের ভেতর অফুরন্ত গল্পের বসতি। সেই সব গল্পই তিনি বলে যেতে চান লেখায়, চলচ্চিত্রে, ছবিতে। তার কাছে চারপাশের জীবন ও জগৎ, মন ও মানুষ, সবই গল্প। তিনি মনে করেন, সিনেমা থেকে পেইন্টিং আলোকচিত্র থেকে ভাস্কর্য, গান থেকে কবিতা-উপন্যাস-নাটক, সৃজনশীল এই প্রতিটি মাধ্যমই মূলত গল্প বলে। গল্প বলার প্রবল আগ্রহ থেকেই সম্ভাব্য সব মাধ্যমেই গল্প বলার চেষ্টা করছেন তিনি। একের পর এক লিখেছেন তুমুল পাঠকপ্রিয় সব উপন্যাস, আরশিনগর, অন্দরমহল, মানবজনম, নিঃসঙ্গ নক্ষত্র ও নির্বাসন। এ ছাড়াও প্রথম রহস্য উপন্যাস ‘ছদ্মবেশ'। লিখেছেন 'যেতে চাইলে যেও' ও 'আমি একদিন নিখোজ হবো’ ও ‘কাজল চোখের মেয়ে’র মতো পাঠক সমাদৃত কবিতার বই । নির্মাণ করেছেন বোধ, দ্য শুজ, প্রযত্নেসহ তুমুল দর্শকপ্রিয় স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র। সম্প্রতি নির্মাণ করেছেন তার প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র 'গহীনের গান'। জিতেছেন জুনিয়র চেম্বার ইন্টারন্যাশনাল অ্যাওয়ার্ড বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির শ্রেষ্ঠ স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রকার পুরস্কার, এসবিএসপি আরপি ফাউন্ডেশন সাহিত্য পুরস্কার, পশ্চিমবঙ্গের চোখ সাহিত্য পুরস্কার, শুভজন সাহিত্য সম্মাননা।

সম্প্রতি নিঃসঙ্গ নক্ষত্র উপন্যাসের জন্য পেয়েছেন এক্সিম ব্যাংক – অন্যদিন হুমায়ূন আহমেদ সাহিত্য পুরস্কার ২০১৯ 

জন্ম মাদারীপুর জেলার, কালকিনি থানার কয়ারিয়া গ্রামে। গ্রামের পাশ দিয়ে বয়ে গেছে ছোট্ট এক নদী। সেই নদীর বুকে বয়ে যাওয়া স্রোতের মতোই বুকের ভেতর অজস্র গল্পের স্রোেত বয়ে বেড়ানো মানুষটি জীবনজুড়েই গল্প বলতে চান। তার মতে, জীবনজুড়ে যেমন গল্প থাকে, তেমনি গল্পজুড়েও থাকে অসংখ্য জীবন। কী অদ্ভুত, নশ্বর জীবনের সেই সব গল্পরাই শুধু হয়ে থাকে অবিনশ্বর।


Submit Your review and Ratings

Please Login before submitting a review..